Benefits of real ajwa dates

আসল এবং ভালো মদীনার আজওয়া খেজুর চিনবেন কিভাবে ?

আজওয়া খেজুরের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস ঃ

আসল এবং ভালো মদীনার আজওয়া খেজুর চিনবেন কিভাবে ?

হযরত সালমান ফার্সীর মালিক ছিল একজন ইয়াহুদী। হযরত সালমান ফার্সী যখন মুক্তি চাইল তখন ইয়াহুদী এই মর্তে তাকে মুক্তি দিতে চাইল যে, যদি তিনি নিদ্দিষ্ট কয়েক দিনের মধ্যে নগদ ৬০০ দিনার দেন এবং তিশটি খেজুর গাছ রোপন করে আর খেজুর গাছে খেজুর ধরলে তবেই সে মুক্ত। আসলে ইহুদির মুক্তি দেবার ইচ্ছা ছিল না। কেননা সালমান ফার্সীর পক্ষে ৬০০ দিনার যোগাড় করা কঠিন ছিল। আর ৬০০ দিনার যোগাড় করলেও খেজুর গাছ রোপন করে তাতে ফল ধরে ফল পাকানো অনেক সময়ের ব্যাপার।


যাক। হযরত সালমান ফার্সী রাসুল (সঃ) এর দরবারে এসে ঘটনা বর্ণনা করলেন। রাসুল (সঃ) ৬০০ দিনারের ব্যবস্থা করলেন। তারপর হযরত আলী (রাঃ) কে সাথে নিয়ে গেলেন ইয়াহুদীর কাছে। ইহুদী এক কাঁদি খেজুর দিয়ে বলল এই খেজুর থেকে চারা উৎপন্ন করে তবে ফল ফলাতে হবে। রাসুল (সঃ) দেখলেন যে, ইহুদীর দেয়া খেজুরগুলো সে আগুনে পুড়িয়ে কয়লা করে ফেলছে যাতে চারা না উঠে। রাসুল (সঃ) খেজুরের কাঁদি হাতে নিয়ে আলী (রাঃ) কে গর্ত করতে বললেন আর সালমান ফার্সীকে বললেন পানি আনতে। আলী (রাঃ) গর্ত করলে রাসুল (সঃ) নিজ হাতে প্রতিটি গর্তে সেই পোড়া খেজুর রোপন করলেন। আল্লাহর অশেষ মহিমায় সেই পোড়া খেজুর থেকে চারা গজালো। রাসুল (সঃ) সালমান ফার্সীকে এ দির্দেশ দিলেন যে, বাগানের শেষ প্রান্তে না যাওয়া পর্যন্ত তুমি পেছন ফিরে তাকাবে না। সালমান ফার্সী পেছনে না তাকিয়ে পানি দিতে লাগলেন। বাগানের শেষ প্রান্তে যাওয়ার পর তিনি তাকিয়ে দেখলেন যে প্রতিটি গাছ খেজুরে পরিপূর্ণ। আর খেজুরগুলো পেকে কালো বর্ণ হয়ে গেছে।
এই খেজুর পৃথিবীর সবচেয়ে দামি খেজুর। আর স্বাদের দিক দিয়েও সবচেয়ে বেশি সুস্বাদু। আর কেনইবা দামী হবে না? যে খেজুর রাসুলের নিজ হাতে রোপন করা।

حديث مرفوع) حَدَّثَنَا عَلِيٌّ ، حَدَّثَنَا مَرْوَانُ ، أَخْبَرَنَا هَاشِمٌ ، أَخْبَرَنَا عَامِرُ بْنُ سَعْدٍ ، عَنْ أَبِيهِ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ ، قَالَ : قَالَ النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ : مَنِ اصْطَبَحَ كُلَّ يَوْمٍ تَمَرَاتٍ عَجْوَةً لَمْ يَضُرَّهُ سُمٌّ وَلَا سِحْرٌ ذَلِكَ الْيَوْمَ إِلَى اللَّيْلِ وَقَالَ غَيْرُهُ : سَبْعَ تَمَرَاتٍ

আলী রহ……….আমির ইবনে সাদ রহ. তাঁর পিতা থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালে কয়েকটি আজওয়া খুরমা খাবে, ঐ দিন রাত পর্যন্ত কোন বিষ ও যাদু তার কোন ক্ষতি করবে না। অন্যান্য বর্ণনাকারীগণ বলেছেন, সাতটি খুরমা।
হাদীস নং ৫৩৭৪

আলী (র) আমির ইবন সাদ তার পিতা থেকে বর্ণিত । তিনি বলেনঃ নবী (সা) বলেছেন: যে ব্যক্তি প্রতিদিন সকালে কয়েকটি আজওয়া খুরমা খাবে ঐ দিন রাত পর্যন্ত কোন বিষ ও যাদু তার কোন ক্ষতি করবে না । অন্যান্য বর্ননাকারীগণ বলেছেনঃ সাতটি খুরমা ।সহীহ বুখারী, হাদীস নং-৫৩৫৬

জুমুআ ইবন আব্দুল্লাহ (র)……সাদ (রাঃ) তার পিতা থেকে বর্ণিত । তিনি বলেন- রাসুলুল্লাহ (সা) বলেছেনঃ যে ব্যক্তি প্রত্যাহ সকালে সাতটি আজওয়া (উৎকৃষ্ট) খেজুর খাবে, সেদিন তাকে কোন বিষ ও যাদু ক্ষতি করবে না

আজওয়া খেজুরের উপকারিতা:

আজওয়া খেজুরের উপকারিতা অনেক। বিশেষ করে মদিনার আজওয়া খেজুরের উপকারিতা উল্লেখযোগ্য। নিয়মিত খেজুর খেলে নিচের উপকার পাওয়া যায়:

  • যাদু-টোনা, বিষ আক্রমণ করতে পারে না।
  • শরীরে রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়ায়।
  • গর্ভবতী মায়েরা খেলে নরমাল ডেলিভারি হয় ও মৃত্যুঝুকি কমে।
  • শরীরে রক্ত শূণ্যতা কমে।
  • হার্ট ও মস্তিষ্ক সুস্থ রাখে।
  • কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে।
  • কিডনি ও লিভার সুস্থ রাখে।
  • কোলন, ব্রেস্ট, ফুসফুস ও অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।
  • ত্বক ও চোখ ভালো রাখে।
  • হাড়কে মজবুত রাখে। বয়সজনিত হাড়ক্ষয় রোধ করে।
  • লো গ্লাইসেমিক ইনডেক্স ফুড হওয়ায় ডায়োবেটিস রোগীরা খেজুর খেতে পারেন। এতে রক্তে সুগার বাড়ে না।

আসল এবং ভালো আজওয়া খেজুরের বৈশিষ্ট্য সমূহ ঃ

আসল এবং মদীনার আজওয়া খেজুরের চিত্র

আজওয়া খেজুরের বাহ্যিক বৈশিষ্ট্য সমূহ ঃ

  • আজওয়া খেজুর টি হবে চমকানো কালো রংয়ের ।
  • আজওয়া খেজুররের মাথার দিকে সোনালী রং এর দাগ থাকবে চিত্রের ন্যায় ।
  • আজওয়া খেজুরের বোটাটি হবে গোলাপী লালচে রংয়ের ।
  • আজওয়া খেজুর হবে অনেকটা গোলাকৃতির বেশী লম্বাওনা আবার খাটোও নয় ।
  • আজওয়া খেজুরের উপরের স্কিনটি হবে চকচকে এবং মসৃন ।

আজওয়া খেজুরের ভিতরের বৈশিষ্ট্য সমূহ ঃ

  • এই খেজুর টি মধ্যথান থেকে ভাঙ্গলে ভিতরের আশ যুক্ত অংশটি হবে গোল্ডেন কালারের চকচকে ।
  • খেজুর টি যদি এই বছরের হয় বা নতুন তাজা খেজুর হয় তবে খেজুরটি নরম হবে ।
  • খেজুরটির ভিতরে কোন দানা দানা ভাব থাকবে না ।
  • খেজুরের পুরুত্ব হবে অনেক যেটা পুরানো খেজুরে পাবেন না ।
  • খেজুরের বিচী হবে ছোট ।
  • ভালো আজওয়ার খেজুরের প্রতিটি দানা ৯-১৩ গ্রাম ওজন হবে ।
উপরের চিত্রের আজওয়া টি ঢাকা বাজারে সয়লাব দেখুন আপনারাই আজওয়া বৈশিষ্ট্য সমূহ কতটুকু বিদ্যমান
আজওয়া এবং আসল আজওয়া খেজুর যাহার মধ্যে আজওয়ার সকল বৈশিষ্ট্য সমূহ বিদ্যমান

আমাদের আজওয়া খেজুর কেন খাবেন?

  • নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় মদিনার বাগান থেকে সংগ্রহ করা সেরা মানের খেজুর।
  • মদিনার আসল খেজুরের একশ ভাগ নিশ্চয়তা।
  • সরাসরি ক্রেতার কাছে পৌছে দেয়া হয় তাই ভেজাল মিশ্রিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই।
  • আজওয়া থেজুরের সকল বৈশিষ্ট্য সমূহ বিদ্যমান ।

Leave a Comment

Scroll to Top